প্রচলিত বাতির বদলে রাস্তায় বিদ্যুতৎ সাশ্রয়ী LED-বাতি বসানো শুরু করেছে ভারত

আমরা যখন নিত্য দিন বিদ্যুৎ খরচের নানা উপায় উদ্ভাবনে ব্যস্ত, ঠিক তখন বিদ্যুতৎ খরচ কমাতে ভারত সরকার বেশ ভালো, তবে একই সাথে বিশাল একটা উদ্যোগ নিয়েছে। তা হলো, ভারতের সমস্ত শহরের রাস্তার পুরনো বাতিগুলো পালটে সেখানে বিদ্যুৎ সাশ্রয়ী লেড বাল্ব লাগাবে তারা।

শুনতে খুব সহজ মনে হলেও বিষয়টা মই দিয়ে উঠে একটা বাল্ব খুলে আরেকটা লাগিয়ে দেয়ার মতো না। ভারত বিশাল একটা দেশ। সরকারী হিসাবে প্রায় দুই কোটি বাতি পরিবর্তন করতে হবে, এই কর্মযজ্ঞ চলবে আনুমানিক দুই বছর এবং খরচ হবে প্রায় আড়াই হাজার কোটি রূপি।

কিন্তু রাস্তার সামান্য বাল্ব পরিবর্তনের কারণে কেন এতো হই চই, এতো আড়ম্বর? কি দোষ করেছে প্রচলিত হ্যালোজেন বাতিগুলো? প্রশ্নটা মনে জাগা স্বাভাবিক। উত্তরটাও দিয়েছেন সেখানকার নীতিনির্ধারকরা।

  • হ্যালোজেন বাতির তুলনায় লেড বাতির স্থায়িত্ব বেশি। একটা হ্যালোজেন বাতি আলো দেয় দুই হাজার ঘন্টা, সেখানে একটা লেড বাতি আলো দিতে পারে পঞ্চাশ হাজার ঘন্টার কাছাকাছি। সে কারণে প্রতি বছর বাতি পাল্টাতে যে খরচটা হয় সেটা অনেক গুন কমে যাবে।
  • একই সাথে লেড বাতি বহু গুন বিদ্যুৎ সাশ্রয়ী। এই খাতে প্রতিবছর মোট মাট সাড়ে পাঁচ হাজার কোটি রূপি সাশ্রয়ের আশা করছে সরকার।

এরই মধ্যে কোলকাতা সহ বেশ কিছু শহরে শোভা বর্ধন করছে লেড বাতি। আগামী বছর, মানে ২০১৬ সালের মার্চের ভেতর আরও প্রায় একশোটি শহরের রাস্তায় লেড বাতি বসানোর লক্ষ মাত্রা ঠিক করেছে ভারত সরকার।

(ভারতের দেখাদেখি আমাদের দেশের সরকারও যদি এমন উদ্যোগ নেয় তাহলে সেটা কেমন হবে? ভালো না খারাপ? কমেন্টে জানান আপনার ভাবনা)

Advertisements

মন্তব্য করুন

Fill in your details below or click an icon to log in:

WordPress.com Logo

You are commenting using your WordPress.com account. Log Out / পরিবর্তন )

Twitter picture

You are commenting using your Twitter account. Log Out / পরিবর্তন )

Facebook photo

You are commenting using your Facebook account. Log Out / পরিবর্তন )

Google+ photo

You are commenting using your Google+ account. Log Out / পরিবর্তন )

Connecting to %s