নতুন করে নূহের কিশতী তৈরী হচ্ছে রাশিয়ায়!

নুহের কিশতির গল্প আমরা সবাই শুনেছি। স্রষ্টার রোষের কবল থেকে প্রাণীজগত কে রক্ষা করতে বিশাল এক নৌকা নির্মাণ করেছিলেন এই মহাপুরুষ। পরম ধৈর্য্যের সাথে জোড়ায় জোড়ায় সেখানে জড়ো করেছিলেন সমস্ত প্রাণীদের। যদিও তুমুল সেই প্লাবনের হাত থেকে রক্ষা পায়নি তার নিজের পরিবার। তবে মানুষ সহ আর সব প্রাণীরা ঠিকই রক্ষা পেয়েছিলো সেই যাত্রায়। (বর্ষন শেষ হওয়ার পর ভূমি থেকে পানি নেমেছে কিনা তা বোঝার জন্যে এক জোড়া সাদা পায়রাকে আকাশে উড়িয়ে দেয়া হয়েছিলো। তারা ফিরে এসেছিলো কর্দমাক্ত পায়ে। ঠোটে ছিলো জলপাই গাছের একটি শাখা।)

যুগে যুগে কিশতীর এই গল্পটি শুনে মানুষ বিমোহিত হয়েছে। প্রায় সমস্ত ধর্মগ্রন্থের পাতায় স্থান পাওয়া এই গল্প শুনে অবাক হয়ে ভেবেছে, এমন কি আসলেই সম্ভব!

মহাপ্লাবনের ঘটনাসমূহ প্রমাণ করতে নৌকাটির ধ্বংশাবশেষের খোজে অনেকেই চষে বেড়িয়েছেন বিভিন্ন এলাকা। বিভিন্ন সময় খুজে পাওয়া নৌকার ধ্বংশাবশেষ দেখে ধারণা করা হয়েছে এটা হয়তো নুহ নবীর সেই নৌকাটি।

যাহোক, আদিকালের সেই মহাপ্লাবন বা কিশতির গল্প নিয়ে নানা রকম তর্ক বিতর্কের ভেতরেই পরোক্ষভাবে সেই কিশতিটা নতুন করে তৈরী করার উদ্যোগ নিয়েছে মস্কো স্টেট ইউনিভার্সিটি।

Photo Courtesy: Leighton Noyes

না, কিশতি মানে কোনো নৌকা বানানোর পরিকল্পনা নেই তাদের। তবে নুহ নবী যেভাবে জোড়ায় জোড়ায় প্রাণীদের জোগাড় করেছিলেন ঠিক সেভাবে বর্তমানে পৃথিবীর সকল জীবিত প্রাণীর ডিএনএ সংরক্ষণ করার একটি পরিকল্পনা হাতে নিয়েছে তারা।

প্রায় ৪৩০ বর্গকিলোমিটারের একটি বিশেষ পরীক্ষাগারে স্থান পাবে বর্তমানে পৃথিবীতে টিকে থাকা প্রায় পনেরো লক্ষাধিক প্রাণীর ডিএনএ। এছাড়া ইতোমধ্যে বিলুপ্ত হয়ে যাওয়া অনেক প্রাণীর ডিএনএ-ও সংগ্রহের চেষ্টা করা হবে বলে জানিয়েছেন বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রেসিডেণ্ট ড. ভিক্টর সেভোনিকি। (স্বাভাবিক, কারণ সংগ্রহের কাজ শেষ হতে হতেই হয়তো বহু প্রাণী নাম লিখিয়ে ফেলবে বিলুপ্তির খাতায়।)

এই কাজের জন্য ব্যয় হবে প্রায় দুহাজার কোটি টাকা, আর সবকিছু ঠিকঠাক থাকলে ২০১৮ সাল নাগাদ শেষ হবে প্রজেক্ট নোয়াহ আর্কের কাজ।

Advertisements

মন্তব্য করুন

Fill in your details below or click an icon to log in:

WordPress.com Logo

You are commenting using your WordPress.com account. Log Out / পরিবর্তন )

Twitter picture

You are commenting using your Twitter account. Log Out / পরিবর্তন )

Facebook photo

You are commenting using your Facebook account. Log Out / পরিবর্তন )

Google+ photo

You are commenting using your Google+ account. Log Out / পরিবর্তন )

Connecting to %s