দুঃস্বপ্ন

একটা দুঃস্বপ্ন প্রায়ই দেখি-

 

পৃথিবীর এই কোটি কোটি মানুষের ভিড়ে,

আমাকে কোথাও খুঁজে পাওয়া যাচ্ছে না..

 

নভেম্বরের সকালে নম্র রোদের ভেতর – রাস্তায় বের হলে

পরিচিত সবাই যেভাবে হাসিমুখে তাকায়

নির্ভার ভঙ্গিতে কাঁধের উপর হাত রাখে

সেভাবে কেউ আর আমাকে ডাকছে না;

কেউ আমাকে খুঁজছে না;

বরং সেখানে দুইজন অচেনা পথচারী পাশাপাশি দাঁড়িয়ে

আমাকে নিয়েই হয়তো কথা বলছে-

কিন্তু শত চেষ্টার পরও

আমার নামটা তাদের কিছুতেই মনে পড়ছে না…

 

আমি হারিয়ে গেছি কোথায় যেন..

লুব্ধকের জ্বলজ্বলে চোখের গভীরে – অথবা সুদূর এন্ড্রোমিডার ভেতরে,

যেখান থেকে ফেরা হবে না আর কখনো,

মহাকালের গ্রাসে চলে যাবে

আমার সাজানো বাগান, ঘর, আসবাব…

 

গোধূলির সময়;

যখন আমার একলা বারান্দায়

দাঁড়িয়ে দাঁড়িয়ে আকাশ দেখার কথা-

তখন হয়তো সেই শূন্য বারান্দায়,

দমকা বাতাস ক্রমাগত সুর তুলে চলছে

নিঃসঙ্গ উইন্ডচাইমে;

 

কোনও এক কিশোর – আমার সাধের কবিতার খাতা থেকে

একটা একটা করে পাতা ছিঁড়ে,

নৌকা বানিয়ে ভাসিয়ে দিচ্ছে পদ্মার ঘোলা জলে..

 

আমি জানি সেই কবিতা গুলো-

পৃথিবীর ইতিহাসে আর কখনো পড়া হবে না..

এই দুঃস্বপ্ন শেষে,

আমার আর কখনোই ফেরা হবে না;

 

Advertisements

মন্তব্য করুন

Fill in your details below or click an icon to log in:

WordPress.com Logo

You are commenting using your WordPress.com account. Log Out / পরিবর্তন )

Twitter picture

You are commenting using your Twitter account. Log Out / পরিবর্তন )

Facebook photo

You are commenting using your Facebook account. Log Out / পরিবর্তন )

Google+ photo

You are commenting using your Google+ account. Log Out / পরিবর্তন )

Connecting to %s