জীবনের সামান্য কিছু ভুল, মৃত্যুর আগে আফসোসের পাহাড়

মৃত্যু মানে একটা জীবনের শেষ। পৃথিবী নামের রঙ্গমঞ্চ থেকে একটা চরিত্রের বিদায়, দীর্ঘ এক অধ্যায়ের পরিসমাপ্তি। কিন্তু সবসময়, সব মানুষের ক্ষেত্রে, এই চলে যাওয়াটা কি ‘হ্যাপি এন্ডিং’ হয়?

শেষের সেই দিনটি চলে আসার আগেই জীবনকে উপভোগ করুন, অন্যদের দিকে না তাকিয়ে নিজের মতো করে বাঁচুন..
শেষের সেই দিনটি চলে আসার আগেই জীবনকে উপভোগ করুন, অন্যদের দিকে না তাকিয়ে নিজের মতো করে বাঁচুন..

একটা কথা আছে, মানুষ যখন নিজের জীবনের শেষ মুহুর্তের কাছাকাছি চলে আসে তখন সে নাকি দিব্যদৃষ্টি লাভ করে। নিজের জীবনের সমস্ত ঘটনা তার চোখের সামনে ভেসে উঠে, নিজের জীবনের প্রতিটি ঘটনা, প্রতিটি মুহুর্ত সে একঝলকে দেখতে পায়। বিলীন হয়ে যাওয়ার আগে পার করে আসা জীবনের ব্যাপারে নিজের মূল্যায়ন করতে পারে।

জানিনা আসলেই এরকম হয় কিনা, তবে একটা ব্যাপার বুঝি, অনেক সময় মৃত্যুর শারীরিক যন্ত্রনার থেকে মানসিক যন্ত্রনা অনেক বেশি হয়, যখন কেউ কোনো অপূর্ণতা নিয়ে মৃত্যুবরণ করে।

কিন্তু জীবনে কোনো অপূর্নতা নেই, এরকম সাধু সন্ত কেউ কি আছে এখনকার দুনিয়ায়? আমি আশেপাশে যত মানুষ দেখি, সবাইকেই তো দেখি কমবেশি হা হুতাশ করতে। এই সব না পাওয়াগুলো কি জীবনের শেষ মুহুর্তগুলোতেও পীড়া দিতে থাকে?

ব্রুনি ওয়ের নামের এক অস্ট্রেলিয়ান লেখিকা বেশ গবেষণা করে একটা বই লিখেছেন কিছুদিন আগে। সেখানে তিনি দাবী করেছেন, সব মানুষই নাকি মৃত্যুর আগে ঘুরেফিরে একই রকম কয়েকটা ভুল নিয়ে আফসোস করে। ভদ্রমহিলা পেশায় একজন নার্স, মৃত্যুর আগে প্রচুর মানুষকে সেবা দিয়েছেন, তাদের সাথে কথা বলেছেন। তাদের সেসময়ের অনুভূতি বিশ্লেষন করে তিনি দেখিয়েছেন, জীবনের শেষ মুহুর্ত গুলোতে একটা মানুষ কিভাবে নিজেকে নিয়ে, প্রিয় মানুষদেরকে নিয়ে আরও কিছুটা সময় কাটানোর, সব অপূর্ণতাকে কাটিয়ে নিজের মতো করে বাঁচার তাগিদ বোধ করে। 

ব্রুনি নিজের দীর্ঘ নার্সিং ক্যারিয়ারের সমস্ত অভিজ্ঞতা একসাথে করে নির্দিষ্ট করে কিছু অপূর্ণতার কথা উল্লেখ করেছেন, যেগুলো মৃত্যুর আগে মানুষকে সবচেয়ে বেশি পীড়া দেয়।

..অন্যদের কথায় কান না দিয়ে নিজের মতো করেই যদি জীবনটা কাটাতাম, অন্যরা কি ভাবছে, তারা কি চায় সব কিছু অগ্রাহ্য করতাম..

..সবসময় খালি অন্যদের ইচ্ছাগুলোই পূরণ করে এসেছি, নিজের ইচ্ছা-অনিচ্ছার দিকে কখনো নজর দেইনি। এসব না করে যদি নিজেকে নিয়ে পড়ে থাকতাম সবসময়..নিজের সব ইচ্ছাগুলোকে পূরন করতে পারতাম..সেটাই বোধহয় ভালো হতো..

..সারাটা জীবন এত খাটাখাটনি করে তো কিছুই পেলাম না, এর চেয়ে আরও বেশি সময় যদি পরিবারের সাথে কাটাতাম, প্রিয় মুখগুলোর সাথে.. কত ভালো হতো..!

..কত কথা অব্যাক্ত রয়ে গেলো..প্রিয়জনদের অজানা রয়ে গেলো কত অনুভূতি..কখনো মুখ ফুটে বলা হয়নি..যদি আর একটা বার সুযোগ পেতাম সবকিছু বলার..

একটা আড্ডা..প্রিয় বন্ধুদের সাথে..আর মাত্র একটা বার যদি সেই মুহুর্তগুলো ফিরে আসতো..

Advertisements

2 comments

  1. আমার জিবনের এইটা শস্তু গটনা আমার হনেক সপন্ন চিলো বিদেশজাবু আমার সপন্ন শস্তু হয়েচে কিনত্ত একটা কতা আমার আপনারা শুনেন একানে এসে দেকলাম যা টাকা পাই তা ভাংলা দেশে আর ওবিশি পেতাম তাই আমি আপনাদের বলি দালাল কে কোনু দিন বিশাশ্সু করবেনা সে হক কাকা মামা চাতবা আর হনেকে আচে জাই হক আমি যে গোলি বললাম শব টিক

মন্তব্য করুন

Fill in your details below or click an icon to log in:

WordPress.com Logo

You are commenting using your WordPress.com account. Log Out / পরিবর্তন )

Twitter picture

You are commenting using your Twitter account. Log Out / পরিবর্তন )

Facebook photo

You are commenting using your Facebook account. Log Out / পরিবর্তন )

Google+ photo

You are commenting using your Google+ account. Log Out / পরিবর্তন )

Connecting to %s