হারিয়ে যাওয়া শৈশব: নীল মলাটের আর্টখাতা

ছোটবেলা থেকেই আঁকাআঁকির উপর একটা ঝোঁক ছিলো আমার, আঁকিবুঁকি দিতে ভালো লাগতো, কিন্তু কেন জানি আমার ছবি গুলা কখনোই পূর্ণাঙ্গ হতো না। সব ছবির-ই অর্ধেকটা ঠিকমতো আঁকতাম, তারপর মনে হতো, ধুর! এটা কি হলো…ভালো হয় নি। সৃষ্টিশীল কাজগুলা আসলে ভালোলাগা থেকে করা হয়, যতক্ষণ ভালো লাগে ততক্ষণ করা যায়, ভালো লাগা শেষ হয়ে গেলে তখন বোর লাগে। তাই এরকম মনে হওয়ার পর ছবিগুলা শেষমেশ আর আঁকা হতো না।

তবে একটা খাতা ছিলো, নীল মলাটের আর্ট খাতা। ক্লাশ সিক্স কি সেভেনে থাকতে স্কুলের আর্ট কোর্সের জন্য কিনেছিলাম। তিনটা টার্ম পরীক্ষার জন্যে আম, জাম, কলা এইসব বাঁধা কিছু ফিগার বাদ দিলে বাকী সব পাতাতেই যা খুশী তাই ইচ্ছামতো এঁকে ফেলতাম। টিফিন বক্সের উপর থাকা পাণ্ডার ছবিটা, ডিজনীর বিভিন্ন কার্টুন চরিত্র থেকে শুরু করে পত্রিকায় নজরুলের উপর বের হওয়া বিশেষ সাময়িকী থেকে জাতীয় কবির আবক্ষ পোট্রেট…সবই ছিলো সেখানে। কিন্তু সেই খাতাটাও বাসায় বেড়াতে আসা এক পিচ্চি না বলে সঙ্গে করে নিয়ে চলে গিয়েছিলো, পরে অবশ্য আমি সেটা জেনেছিলাম। কিন্তু সেই খাতাটা আর ফিরিয়ে আনা হয় নি।

ইদানীং রঙ পেনসিল দেখলেই নস্টালজিক হয়ে যাই...

অনেকেই এরকম করে যে ছোটবেলায় নিজের আঁকা ছবিগুলা সযত্নে তুলে রাখে, আমার সংগ্রহে এরকম নিজের কোনও আঁকা ছবি নাই। সারা বছর যেসব ছবি আঁকতাম, বছর শেষে সেগুলার গন্তব্য হতো পুরনো খবরের কাগজওয়ালাদের ঝুলিতে। কে জানে ঘণ্টার পর ঘণ্টা মন লাগিয়ে করা আমার সেই সব পেইন্টিং এর কাগজ দিয়ে ঠোঙ্গা বানিয়ে কোন ঝালমুড়ি ওয়ালা ঝালমুড়ি বিক্রি করেছে!

শৈশবের আঁকাআঁকির স্মৃতি বলতে ঐ খাতাটাই শুধু ছিলো আমার কাছে। অনেকদিন পর আজকে হঠাৎ কেন জানি খাতাটার কথা মনে পড়ে গেলো। আচ্ছা! যে পিচ্চিটাকে এটা দিয়েছিলাম সে কি এটা এখনো এটা যত্ন করে রেখে দিয়েছে? নাহ..এতদিনে সেটা আর সেসময়ের মতো সযত্নে থাকার কথা না। আর তা রাখলেই বা কি…

“সোনে ভরতি জীবন নাবী~
রূপা থুই নাহিকো ঠাবি;
বাহতু কামলী গঁগন উঁবেসে-
পিছলে যাম ফিরেঙ্গে কৈসে।।”

আজকে ২০১১ সালের শেষ দিন, এই বছরের খাতা বন্ধ করে আজকে রাতেই শুরু হবে নতুন একটা বছর। ভাবছি চলে যাওয়া বছরের খাতাটাও যদি আমার আর্টখাতার মতো ইচ্ছা করলেই হারিয়ে ফেলা যেত, তাহলে কি আমি সেটা হতে দিতাম? কিছু কিছু ঘটনা যদি একটু ঘষামাজা করতে পারতাম, অথবা দুইএকটা পাতা যদি হাপিশ করে দিতে পারতাম, তাহলে মন্দ হতো না। কিন্তু এই সব কিছু নিয়েই তো জীবন, কোনও কিছু না মুছে সব অম্ল-মধুর স্মৃতির ক্যানভাসে চলে যাওয়া বছরটা আঁকা হয়ে থাকলো মনের ভেতর।

আসছে বছর সবার ভালো কাটুক, আনন্দে কাটুক আমার পক্ষ থেকে এই শুভকামনা রইলো 🙂

(ছবিটা গুগল থেকে নেওয়া)

Advertisements

6 comments

  1. শৈশবে এর স্মৃতি গুলো কে এখনো অনেক মিস করি 😦
    সবাই তখন শুক্রবারে সকালে আর্ট এর ক্লাস করতাম ।। সে কি মজা লাগতো ।।

    university তে আর্ট এর ক্লাস রাখলে ভালো হত :p

    • ইউনিভার্সিটিতে আর্টের ক্লাস লাগবো, তাইলে চারুকলায় ভর্তি হৈলা না ক্যান 😉
      আর তোমার ভার্সিটি লাইফ তো শেষের পথে…কয়দিন পর চাকরীতে ঢুকবা, তখন সেখানেও
      কি বসরে আর্টের ক্লাস এরেঞ্জ করতে হৈবো নাকি?? :p 😀

মন্তব্য করুন

Fill in your details below or click an icon to log in:

WordPress.com Logo

You are commenting using your WordPress.com account. Log Out / পরিবর্তন )

Twitter picture

You are commenting using your Twitter account. Log Out / পরিবর্তন )

Facebook photo

You are commenting using your Facebook account. Log Out / পরিবর্তন )

Google+ photo

You are commenting using your Google+ account. Log Out / পরিবর্তন )

Connecting to %s