হরতালের পক্ষে-বিপক্ষে

সম্প্রতি আড়িয়াল বিলে বিমানবন্দর নির্মানের প্রতিবাদে সংগঠিত সহিংসতায় ইন্ধন দেয়ার অভিযোগে বিরোধী দলীয় নেত্রী খালেদা জিয়ার বিরুদ্ধে মামলা করা হয়েছে। এবং এরই সূত্র ধরে বিএনপি আগামীকাল সোমবার সারা দেশে সকাল সন্ধ্যা হরতাল আহবান করেছে।

যদিও এর আগে আড়িয়াল বিলের বিমানবন্দর নিয়ে বিএনপিকে তেমন একটা ব্যস্ত দেখা যায় নি, খালেদা জিয়ার বিরুদ্ধে মামলা দেয়ার পরপরই তারা হুংকার দিয়ে এর বিরুদ্ধে এক কথা দুই কথা বলছেন। দ্রব্যমূল্য বৃদ্ধি বিদ্যুত গ্যাস সহ অনেক দাবী একসাথে জুড়ে দিলেও মূল কারনটি যে চেয়ারপার্সনের বিরুদ্ধে মামলা, সেটা তাদের বক্তৃতা বিবৃতি তেই স্পষ্ট। আর হরতালটি ডাকাও হলো এসএসসি পরীক্ষা ও স্বরস্বতী পূজার সময় আর বিশ্বকাপ শুরু হওয়ার মাত্র এক সপ্তাহ আগে। এর আগেও বাড়ি থেকে উচ্ছেদের সময় কুরবানী ঈদের কয়েকদিন আগে হরতাল আহবান করেছিলো দলটি। যাতে সরকারের চেয়ে সাধারন মানুষ কেই দুর্ভোগ পোহাতে হয়েছিলো বেশী। অন্যদিকে দিনবদলের নামে ক্ষমতায় আসা মহাজোটের অবস্থাও তথৈবচ। দেশকে ডিজিটাল করার খায়েশের যে খেসারত সাধারন জনগনকে দিতে হচ্ছে, তারা যে এখনো সুহালে গদিতে আছেন, তা তাদের ভাগ্যই বলতে হবে।তাই এত আস্ফালনের পরও আগামীকালের হরতালকে সফল করতে না পারলে বিরোধী দল হিসেবে নিজেদের অবস্থান অনেকটাই হারাবে বিএনপি। আর আওয়ামী লীগও এটা প্রচার করার সুযোগ পেয়ে যাবে যে বিএনপির কাছে আসলে দেশের চেয়ে নেত্রী বড়। কারন আড়িয়াল বিলে বিমানবন্দর নির্মান না করার ঘোষনা দিয়ে ইতোমধ্যেই রাজনীতির বোর্ডে এক চাল দিয়ে ফেলেছে সরকার। আমার তাই মনে হয় সরকার বিরোধী আন্দোলনকে বেগবান করতে বিএনপির সামনে এটাই মোক্ষম সময়, এখন সঠিক সিদ্ধান্ত নিতে না পারলে খুব শিগগিরি রাজনীতির মাঠ গরম হওয়ার সম্ভাবনা নেই। আপনি কি ভাবছেন?

Advertisements

7 comments

  1. আমার একটি প্রশ্ন আছে। যেখানে আমাদের ঢাকার বিমান বন্দর এর ৪০% এর কম ব্যাবহৃত হচ্ছে সেখানে আরও একটি নতুন বিমান বন্দর করার যুক্তিকতা কি? অর্থনৈতিক উন্নয়নে তার প্রভাব কি আদো পরবে!

    • ব্যাক্তিগত ভাবে আমি আড়িয়াল কেন, দেশের কোথাওই নতুন আরেকটা বিমান বন্দর নির্মানের বিপক্ষে। কিন্তু বিরোধী দলের চলমান আন্দোলনের সফলতা নিয়ে আমার সন্দেহ হচ্ছে। কেন যেন ইস্যূ থাকার পরও ব্যাটে বলে হচ্ছে না……

  2. শেয়ার বাজার থেকে হাজার হাজার কোটি টাকা লুট করেছে সরকার। এটাই একমাত্র ইস্যু হওয়া দরকার এখন।

  3. চরম মিত্থুক, ইসলাম বিদ্বেষী, ভারতের স্বার্থ রক্ষাকারী, গনমানুসের দুশমন হাসিনা গং দের এখনি ক্ষমতা থেকে সড়ে যাওয়া উচিৎ, না হোলে বাংলাদেশ আর একটা মিশর হবার সম্ভাবনা আছে।

  4. চরম মিত্থুক, ইসলাম বিদ্বেষী, ভারতের স্বার্থ রক্ষাকারী, গনমানুসের দুশমন হাসিনা গং দের এখনি ক্ষমতা থেকে সড়ে যাওয়া উচিৎ, না হোলে বাংলাদেশ আর একটা মিশর হবার সম্ভাবনা আছে।

মন্তব্য করুন

Fill in your details below or click an icon to log in:

WordPress.com Logo

You are commenting using your WordPress.com account. Log Out / পরিবর্তন )

Twitter picture

You are commenting using your Twitter account. Log Out / পরিবর্তন )

Facebook photo

You are commenting using your Facebook account. Log Out / পরিবর্তন )

Google+ photo

You are commenting using your Google+ account. Log Out / পরিবর্তন )

Connecting to %s